News logo
Friday 22nd November 2019

সিটি নির্বাচনঃ বিএনপির মেয়র প্রার্থীদের উপর মামলার পাহাড়



মার্চ ৩১, ২০১৫ | ২২:৪৬:৩৩

বাংলাকাগজটুয়েন্টিফোরডটকম ডেক্সঃ বিএনপি সমর্থিত ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র প্রার্থী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নামে ৩৭টি ও ঢাকা উত্তরে মেয়র প্রার্থী আবদুল আওয়াল মিন্টুর নামে ১৩টি মামলা থাকলেও আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ঢাকা দক্ষিণে সাঈদ খোকন ও উত্তরে আনিসুল হকের নামে কোনো মামলা নেই।

নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে প্রার্থীদের দেওয়া হলফনামা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

সাবেক মেয়র মোহাম্মদ হানিফের ছেলে্ ও আওয়ামী লীগ নেতা ঢাকা দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকন অতীতে ৫টি মামলা থেকে অব্যাহতি পান।

এদিকে মির্জা আব্বাসের হলফনামায় ৬১টি মামলার বিবরণ দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে বর্তমান সরকারের আমলে ৩৭টি মামলা ও আগের ২৪টি মামলা রয়েছে। অতীতের ২৪টি মামলায় অব্যাহতি ও খালাস পেয়েছেন তিনি। বিএনপি সমর্থিত অপর প্রার্থী আবদুস সালামের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা রয়েছে।

ঢাকা উত্তরের মেয়র প্রার্থী ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল আওয়াল মিন্টুর নামে ১৩টি ফৌজদারি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে ২০১৩ সালে ৫টি, ২০১৪ সালে ১টি ও চলতি বছরে ৫টি মামলা করা হয়েছে।

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ সমর্থিত প্রার্থী বজলুর রশিদ ফিরোজ তার হলফনামায় ছয়টি মামলার তথ্য উল্লেখ করেছেন । এসব মামলার মধ্যে চারটি থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন তিনি। ইসলামি আন্দোলনের প্রার্থী আবদুর রহমান তার হলফনামায় চারটি মামলার তথ্য দিয়েছেন।

ঢাকা উত্তরের প্রার্থী আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক সাংসদ সারাহ্ বেগম কবরীর নামেও কোনো মামলা নেই।

এদিকে নির্বাচনে অপরাধী প্রার্থীদের গ্রেপ্তারে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) কোনো অনুমতি লাগবে না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ।

মঙ্গলবার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনে তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শাহনেওয়াজ বলেন, আইনেই বলা আছে কে প্রার্থী হবেন। কীভাবে নির্বাচন করবেন। এক্ষেত্রে আইনে যা আছে, সেভাবেই কাজ হবে।

মেয়াদ শেষ হওয়ার প্রায় আট বছর পর আগামী ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এদিকে ওইদিন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনেরও নির্বাচন হবে।

Top