ব্রেকিং নিউজ
১১ নভেম্বর ‘বেতিয়ারা শহীদ দিবস’

১১ নভেম্বর ‘বেতিয়ারা শহীদ দিবস’

কুমিল্লা প্রতিনিধি : ১১ নভেম্বর ‘বেতিয়ারা শহীদ দিবস’। ১৯৭১ সালের ১১ নভেম্বর মুক্তিযুদ্ধের সুমহান গৌরবগাঁথায় যুক্ত হয়েছিল একটি উজ্জ্বল রত্নকণিকা। দেশপ্রেম ও সাহসের রক্তিম আল্পনায় আত্মদানের এক অমর অধ্যায় সেদিন রচিত হয়েছিল কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বেতিয়ারায়। পাকিস্তানি বাহিনীর সাথে কমিউনিস্ট পার্টি-ন্যাপ-ছাত্র ইউনিয়নের বিশেষ গেরিলা বাহিনীর এক তুমুল যুদ্ধ হয়েছিল। কয়েক ঘণ্টা ধরে চলা অনেকটাই ‘হ্যান্ড টু হ্যান্ড কমব্যাট’-এর মতো মুখোমুখি সেই সম্মুখ সমরে অসীম সাহসিকতার সাথে যুদ্ধ করে জীবন উৎসর্গ করেন বিশেষ গেরিলা বাহিনীর ৯ জন গেরিলা যোদ্ধা। বেতিয়ারার এই যুদ্ধে শহীদ হন- নিজাম উদ্দিন আজাদ, সিরাজুম মুনীর, মো. শহীদুল্লাহ, বশির মাস্টার, আব্দুল কাইয়ুম, জহিরুল হক দুদু, আওলাদ হোসেন, কাদের মিয়া, সফিউল্লাহ। অমৃতের এই বীর সন্তানেরা সেদিন বেতিয়ারার শ্যামল মাটিতে বুকের রক্ত ঢেলে দিয়ে এক অমর বীরত্বপূর্ণ ইতিহাস রচনা করেছিলেন।

‘বেতিয়ারা শহীদ দিবস’ উপলক্ষে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ এক বিবৃতিতে বেতিয়ারার শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেছেন, শহীদদের স্বপ্ন এখনো পূরণ হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের ধারায় দেশ পরিচালিত হচ্ছে না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এখন আক্রান্ত। একাত্তরের পরাজিত জামাত-শিবির সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী মুক্তিযুদ্ধের ভিত্তির ওপর আঘাত হানছে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ধারায় দেশকে অগ্রসর করার মধ্য দিয়েই বেতিয়ারার শহীদসহ মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি যথাযথ শ্রদ্ধা নিবেদন করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত চেতনায় উজ্জীবিত বাম-গণতান্ত্রিক শক্তির উত্থান ঘটাতে হবে। দেশ থেকে সকল প্রকার শোষণ, বৈষম্যের অবসান ঘটিয়ে মুক্তিযুদ্ধের ধারায় দেশকে ফিরিয়ে আনার সংগ্রাম জোরদার করতে হবে।

বেতিয়ারা শহীদ দিবসের কর্মসূচি

বেতিয়ারা শহীদ দিবস উপলক্ষে  ১১ নভেম্বর কুমিল্লার বেতিয়ারায় সকাল ১১ টায় পতাকা উত্তোলন, বেতিয়ারার শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে সিপিবিসহ বিভিন্ন দল, ছাত্র ইউনিয়ন, উদীচী, খেলাঘর আসরসহ বিভিন্ন গণসংগঠন এবং স্থানীয় জনসাধারণের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হবে। এরপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। কর্মসূচিতে সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা কমরেড মনজুরুল আহসান খান, প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড শাহ আলম, কমরেড ল²ী চক্রবর্তীসহ সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করবেন।

সকালে মুক্তিভবনস্থ সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বেতিয়ারার শহীদদের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হবে।

এছাড়া সারাদেশে সিপিবি’র উদ্যোগে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি পালন করা হবে।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*