ব্রেকিং নিউজ
শ্রীমঙ্গল ফারুক হত্যাকান্ডের দায় শিকার করেছে স্ত্রী শিরিন আক্তার

শ্রীমঙ্গল ফারুক হত্যাকান্ডের দায় শিকার করেছে স্ত্রী শিরিন আক্তার

মো: মাহবুবুর রহমান রাহেল: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা শহরের সুরভী পাড়া থেকে ফারুক মিয়া (২৭) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (২৪ জুলাই) দুপুরে শ্রীমঙ্গল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত ফারুক ওই এলাকার মৃত ইমাম উদ্দিনের ছেলে।

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম নজরুল ইসলাম  জানান, খবর পেয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। তিনি আরো জানান মৃতদেহের মাথায় প্রায় ৫টি আগাতের চিহ্ন রয়েছে।

শ্রীমঙ্গলে ফারুক ইসলাম হত্যার দায় শিকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন ফারুকের স্ত্রী শিরিন আক্তার গত ২৪ জুলাই আনুমানিক সকাল এগারোটার সময় স্বামী ফারুক ইসলাম ঘুমে ছিলেন। এসময় বাচ্ছা ফাইজা তাবাছুম রাখা স্বামীকে ঘুমের মধ্যে বিরক্ত করছিল। এতে ফারুক রাগান্নীত হয়ে স্ত্রী শিরিন আক্তারকে গালিগালাজ করে এবং মেয়েকে তার নানীর বাসায় দিয়ে আসতে বলে। তখন রাখাকে তার নানির কাছে রেখে বাসায় আসলে, ফারুক তাহাকে দেখে দ্রুত বাসার মালামাল গোছানোর জন্য গালিগালাজ করে। ফারুককে গালিগালাজ না করতে নিষেধ করলে, ফারুকুল আত্রেুাশিত হয়ে তার চুলের মুঠি ধরে সোফার উপর ফেলে দেয়, এসময় সে সোফার পাশে থাকা ষ্টীলের ট্রে দিয়ে ফারুকুলের মাথায় একাধিক আঘাত করলে তার রক্ত ক্ষরন শুরু হয়। তখন সে সোফা থেকে উঠে ঘরের বাইরে চলে যায়। কিছুক্ষন পর শিরিন আক্তার ঘরে এসে দেখে তার স্বামীর কোন সাড়াশব্দ নেই, পরে সে চিৎকার করলে স্থানীয় লোকজন এসে ফারুকুলকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাহাকে মৃত ঘোষনা করেন।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*