ব্রেকিং নিউজ
যে কোনো প্রতিকূল অবস্থায় বিএনপি নির্বাচনে যাবে: মওদুদ

যে কোনো প্রতিকূল অবস্থায় বিএনপি নির্বাচনে যাবে: মওদুদ

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেছেন, যত প্রতিকূল পরিবেশই আসুক না কেন, বিএনপি আগামী নির্বাচনে যাবে।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে স্বাধীনতা ফোরাম আয়োজিত বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার প্রতিবাদে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিএনপির এই নেতা বলেন, যত অত্যাচার, নির্যাতন হোক না কেন, যত প্রতিকূল পরিবেশ তৈরি হোক না কেন, বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে। তবে তিনি এও বলেন, এই সরকার বিএনপির সঙ্গে সমঝোতায় আসতে বাধ্য হবে। বিএনপির সহায়ক সরকারের দাবি এই সরকারকে মানতে হবে।

মওদুদ বলেন, আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নিলে নির্বাচনই হবে না। তাই সরকারকে সমঝোতার মাধ্যমে বিএনপিকে নিয়েই নির্বাচন করতে হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ প্রবীণ সদস্য বলেন, এই নির্বাচনে গণজোয়ার হবে। সরকার সমঝোতায় না আসলে দেশের মাটিতে গণবিস্ফোরণ হবে। কারণ এ সরকারের অত্যাচারে মানুষের ধর্য্যের বাঁধ ভেঙে গেছে। এছাড়া মানুষের এখন অন্য কোনো পথ নেই। ১০ বছর ক্ষমতায় থেকে আওয়ামী লীগ প্রমাণ করেছে তারা একটি সন্ত্রাসী রাজনৈতিক দল।

বিএনপির এ নীতিনির্ধারক বলেন, সরকারের নিকট থেকে জনগণ একটা কথাই শিখছে তা হলো ‘সদা সর্বদা মিথ্যা কথা বলিবে’। কক্সবাজারে যাওয়ার পথে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলা কারা করেছে তা সবাই জানে । এমনকি যারা এ হামলাকে অস্বীকার করছে তারাও জানে এটা ছাত্রলীগ এবং যুবলীগের সন্ত্রাসীরা করেছে। কিন্তু মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে লজ্জাজনক ভাবে গ্রেফতার করা হচ্ছে বিএনপি নেতাকর্মীদের।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমের উপর সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে হামলা করেছে। কারণ তারা গণমাধ্যম এবং দেশের মানুষের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। সে কারণেই শুধু গাড়িবহরে নয়, গণমাধ্যমের উপর হামলা করেছে ছাত্রলীগ যুবলীগের সন্ত্রাসীরা।

‘আমাদের নেত্রী আরও যাবেন। একটা অংশে মানুষের ঢল দেখেই এমন করছেন আপনারা? গাড়িবহরে হামলা করে বিএনপি এবং জনগণের অগ্রযাত্রা বন্ধ করা যাবে না। আরও সফরে যাবো আমরা। দেখবো কত বহরে আপনারা হামলা করতে পারেন।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আবু নাসের মো. রহমত উল্লাহর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আব্দুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, এলডিপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*