ব্রেকিং নিউজ
মৌলভীবাজারে ২৯১ কিলোমিটার সড়কের বেহাল দশা

মৌলভীবাজারে ২৯১ কিলোমিটার সড়কের বেহাল দশা

আব্দুল ওয়াদুদ,মৌলভীবাজার:
এ বছর নিমিশেই বৃষ্টি আর দফায় দফায় বন্যায় মৌলভীবাজারের প্রায় ২৯১ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সড়কের ওপর দীর্ঘ সময় পানি জমে থাকায় ইট-সুরকি সরে গিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় খানা-খন্দের। প্রতিদিন শত শত গাড়ি নিয়ে এসব সড়ক দিয়ে যানবাহন চালাতে বেগ পেতে হচ্ছে চালক ও যাত্রীদের।
প্রয়োজনীয় বরাদ্দ না পাওয়ায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা ভাঙ্গাচোরা সড়কগুলো মেরামতের কাজে হাত দিতে পারছেন না বলে জানা গেছে। কেবল সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ রক্ষণাবেক্ষণ খাত থেকে বরাদ্দ দিয়ে কোনো রকম সড়কগুলো যান চলাচলের উপযোগী রাখছে। সওজ বিভাগের জেলা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বন্যায় এ বিভাগের প্রায় ৯১ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এগুলো হলো রাজনগর-কুলাউড়া-বড়লেখা-বিয়ানীবাজার আঞ্চলিক মহাসড়ক, জুড়ী-লাঠিটিলা আঞ্চলিক মহাসড়ক, মৌলভীবাজার-শমশেরনগর-চাতলা সড়ক, জুড়ী-ফুলতলা-বটুলী (লিংক রোড গাজীপুর) সড়ক, কুলাউড়া-শমশেরনগর-শ্রীমঙ্গল সড়ক, কুলাউড়া-পৃত্থিমপাশা-হাজীপুর-শরীফপুর (রবিরবাজার-টিলাগাঁও সংযোগসহ) সড়ক, কমলগঞ্জ উপজেলার হেডকোয়ার্টার-মুন্সিবাজার, আদমপুর-আলীনগর বাজার, মুন্সিবাজার-মির্তিংগা ও মঙ্গলপুর-চিতলী সড়ক।
এ বছর জেলার পাঁচটি উপজেলায় তিন দফা বন্যা হয়েছে। এ সময় কুলাউড়া, জুড়ী, বড়লেখা সড়কসহ রাজনগর-ফতেপুর সড়ক এবং সদর উপজেলার সড়কগুলো ক্ষতির মুখে পড়ে। ছোট ছোট গাড়ির মধ্যে অটোরিক্সার প্রায়ই যন্ত্রাংশ ভেঙে গাড়ি সড়কে আটকে গেছে। এতে চালকদের পাশাপাশি দুর্ভোগে পড়ছে বিভিন্ন শ্রেণির যাত্রীরা।
কথা হয় কুলাউড়া উপজেলার হাজিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু’র সাথে। তিনি বলেন, লাগাতার বন্যার কারণে কুলাউড়া-বড়লেখা সড়ক অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এখন পর্যন্ত সংস্কারের কোন উদ্যোগ না নেয়ায় যাত্রীদের যাতায়াত করা কষ্টসাধ্য হয়েছে। ওই সড়ক দিয়ে অসংখ্য মানুষ আদালতের কাজে মৌলভীবাজারসহ বিয়ানীবাজার-বড়লেখা-কুলাউড়া হয়ে আবার অনেকেই ঢাকা যাতায়াত করেন। ওই সড়ক সংস্কার করাটা জরুরী হয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ বলেন, মৌলভীবাজার-কুলাউড়া-বড়লেখা উপজেলা দিয়ে আমাদের (সওজ) এর ৫৯ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য সড়ক রয়েছে। ওই সড়কে বর্তমানে ৯ কিলোমিটার টেন্ডার হয়েছে। অবশিষ্ট সড়ক সংস্কার করতে ১৪ কোটি টাকা চেয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছি। বিষয়টি হুইপ মহোদয় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীকে জানিয়েছেন। অনুমোদন হলেই টেন্ডার হবে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) প্রকৌশলী মোঃ কামরুল ইসলাম বলেন, আমাদের ১১৭টি সড়কের মধ্যে ২শ কিলোমিটারের বেশী সড়ক ও ব্রিজ-কালভার্ট ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যা সংস্কার করতে ৭০ কোটি টাকা লাগবে। সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে রাজনগর-ফতেপুর সড়ক, সদর উপজেলার একাটুনা সড়ক ও বড়লেখা উপজেলার কানুনগো বাজার-হাকালুকি সড়ক । তিনি বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ দেশের ৩০টি জেলার মধ্যে মৌলভীবাজারের নাম তালিকায় নাই। পরে ঢাকা গিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ক্ষতির বিষয়টি আমরা বলেছি। বিষয়টি শুনে কর্তৃপক্ষের একটি টিম মৌলভীবাজার এসে দেখে গেছে। সর্বশেষে আমরা সরকারের জিওবি থেকে ২০ কোটি টাকা সড়ক সংস্কারের খাতে পেয়েছি। আগামী মাসে টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে। অনুমোদন পাওয়া তালিকা দেখে সড়ক সংস্কার করা হবে।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*