ব্রেকিং নিউজ
মেয়েটি কাপড় সরিয়ে দেখালে দিদিমা তো সজ্ঞাহীন

মেয়েটি কাপড় সরিয়ে দেখালে দিদিমা তো সজ্ঞাহীন

দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি: মন্দিরটার নাম নৃসিংহ জিউ আখড়া। কলোনিটা আখড়ার জমিতেই। এই কলোনিরই একটি খুপড়ি ঘরে মা আর ভাইদের সাথে থাকে মেয়েটি। মেয়েটির বয়স মাত্র পাঁচ। দেখতে আরো কম মনে হয়। দারিদ্রতা, অপুষ্টি- এইসব কারণে হবে হয়তো!

মেয়েটির বাবা নেই। ভাইয়েরাও নাবালক। মা মুড়ি ফ্যাক্টরিতে কাজ করেন। এখনো স্কুলে যাওয়া শুরু হয়নি মেয়েটির। দিনভর কুতকুত আর গোল্লাছুট, সন্ধ্যে হলেই উলুধ্বণির শব্দ শুনে হাজির হওয়া মন্দিরের প্রার্থনায়।

ছেলেটার নাম বিপ্লব। বয়স ১৮। একই কলোনিতে পাশাপাশি ঘরে থাকে।

সেদিন মেয়েটির মা গিয়েছিলেন কাজে। ভাইয়েরাও ঘরে নেই। ছেলেটির ঘরও ছিলো ফাঁকা। মেয়েটিকে নিজের ঘরে ডেকে নেয় বিপ্লব। এরপর জবরদস্তি। মেয়েটির চিৎকার যাতে বাইরে না যেতে পারে তাই মুখ চাপা দিয়ে ধরে সে। কলোনির খুপড়ি ঘরে আটকে যায় মেয়েটির আর্তনাদ।

মেয়েটি যখন নিজ ঘরে ফিরে আসে তখন তার যৌনাঙ্গ দিয়ে রক্ত বেরুচ্ছে। যন্ত্রতায় কথাও বলতে পারে না সে। ঘরে গিয়ে কেঁদে কেঁদে তার দিদিমাকে বলে, ‘ওউ পুয়া ইগু বড় খবিছ। দেখো আমারে কিতা করছে।’ নাতনির কথা শুনে দিদিমা প্রথমে বুঝতে পারেন না। নাতনিকেই ধমক দেন। এতটুকুন একটা মেয়ের সাথে এমন কাজ হতে পারে, তা কে বিশ্বাস করবে!

এরপর মেয়েটি কাপড় সরিয়ে দেখালে দিদিমার তো সজ্ঞাহীন হওয়ার উপক্রম। এরপর ঘটনা জানাজানি হয়। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে স্থানীয় জনতার সহযোগীতায় ধর্ষক বিপ্লব দেবকে দক্ষিণ সুরমার ঝলোপাড়ার নৃসিংহ জিউর আখড়া কলোনি থেকে আটক করে পুলিশ। মেয়েটিকে ভর্তি করা হয় ওসমানী হাসপাতাল ওয়ান স্টপ সেন্টারে। বিপ্লব দেব এই কলোনির বাসিন্দা সজল দেবের ছেলে।

সোমবার মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (দক্ষিণ) জেদান আল মুসাও ঝালোপাড়ার ওই কলোনিতে গিয়ে আক্রান্ত শিশু ও তার পরিবারের সাথে কথা বলেন। এ ব্যাপারে বালিকার দিদিমা বাদি হয়ে দক্ষিণ সুরম থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মঙ্গলবার হাসপাতাল থেকে কলোনিতে নিয়ে আসা হয় মেয়েটিকে।

মঙ্গলবার ওই কলোনিতে গিয়ে দেখা যায়। বাচ্চা মেয়েটি বিছানায় শুয়ে আছে। উঠে বসারও ক্ষমতা নেই তার। নাতনির পাশে বসে কেঁদে চলছেন তার দিদিমা। মেয়েটির মা যথারীতি মুড়ি ফ্যাক্টরিতে। ঘরে বসে বসে চোখের জল ফেলতে থাকলে উনুনে আর জল ছড়ানোর হবে না তাঁর!

মেয়েটির দিদিমা বলেন, ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকেই বিপ্লবের পরিবারর পক্ষ থেকে আমাদের হুমকী দেওয়া হচ্ছে। আমাদের ঘর নাকি জ্বালিয়ে দেওয়া হবে।

উপ কমিশনার (দক্ষিণ) জেদান আল মুসা বলেন, বিপ্লব দেবকে মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ওই শিশুটির পরিবারকে হুমকি দেওয়ার বিষয়ে তার জানা নেই বলে জানান মুসা।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*