ব্রেকিং নিউজ
বড়লেখায় প্রবাসীর স্ত্রী, ছেলে ও মেয়ের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বড়লেখায় প্রবাসীর স্ত্রী, ছেলে ও মেয়ের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বড়লেখায় প্রতিনিধি
বড়লেখায় প্রবাসীর স্ত্রী, ছেলে ও মেয়ের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড এ নিয়ে পুলিশ ও এলাকাবাসীর সন্দেহ

মৌলভীবাজারের বড়লেখা থানা পুলিশ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাত সাড়ে ৭টায় উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের ভোলাকান্দি গ্রামের একই পরিবারের ৩ সদস্যের ঝুলন্ত মরদেহ তাদের বসতঘর থেকে উদ্ধার করেছে। নিহতরা হচ্ছে কাতার প্রবাসী আকামত আলীর স্ত্রী মাজেদা বেগম (২৫), মেয়ে লাবনী বেগম (৫) ও ছেলে ফারুক আহমদ (৩)। নিহত মাজেদার বাবার বাড়ী কুলাউড়া উপজেলার সাদিপুর গ্রামে। ঘটনাটি আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যা, এ নিয়ে পুলিশ ও এলাকাবাসীর মধ্যে নানা সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

পুলিশ ও প্রতিবেশী সুত্রে জানা গেছে, কাতার প্রবাসী আকামত আলীর স্ত্রী বসত বাড়ীর প্রায় ১শ’ গজ অদুরে মিস্ত্রী দিয়ে ঘর নির্মাণ করাচ্ছেন। প্রতিদিন তিনি মিস্ত্রীদের সাহায্য সহযোগিতা করতেন। মঙ্গলবারও তিনি বসত ঘর ও নির্মাণাধীন স্থানে যাওয়া আসা করছিলেন। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে দিবাংশু নামে মিস্ত্রী সিমেন্টে নিতে গিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি করে। দীর্ঘক্ষণ সাড়া না পেয়ে দরজার ফাক দিয়ে মাজেদাসহ মেয়েকে ঝুল্ন্ত দেখে লোকজনকে জানায়। খবর পেয়ে ওয়ার্ড মেম্বার মাসুক আহমদ ও আ’লীগ নেতা মোক্তার আলী পুলিশে খবর দেন। সন্ধ্যা ৬টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মা ও মেয়ের ঝুলন্ত লাশ ও মেঝে থেকে শিশুপুত্রের মৃতদেহ উদ্ধার করে।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মাসুক আহমদ জানান, তিনি বিকেল ৫টার দিকে খরব পেয়েই ঘটনাস্থলে অবস্থান করেন। কি কারণে ঘটনাটি ঘটেছে তা নিশ্চিত নন। ধারণা করছেন বিকেলের দিকে ঘটনাটি ঘটেছে।

বড়লেখা থানার সেকেন্ড অফিসার এস.আই অমিতাভ দাস তালুকদার মঙ্গলবার রাত ৭টায় বাংলাকাগজটুয়েন্টিফোরডটকমকে জানান, মা ও মেয়ের ঝুলন্ত ও শিশুপুত্রের লাশ মেঝ থেকে উদ্ধার ও সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করেছেন। ময়না তদন্তের জন্য লাশ তিনটি মর্গে প্রেরণ করা হবে। ঘটনাটি আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড তা এ মুহুর্তে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*