ব্রেকিং নিউজ
কাজী আরেফ হত্যা মামলা: বৃহস্পতিবার রাতে কার্যকর হচ্ছে ৩ জনের ফাঁসি

কাজী আরেফ হত্যা মামলা: বৃহস্পতিবার রাতে কার্যকর হচ্ছে ৩ জনের ফাঁসি

যশোর: মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক জাসদ সভাপতি কাজী আরেফ আহমেদসহ কুষ্টিয়া জেলা জাসদের ৫ নেতা হত্যার দায়ে তিন আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা তিন আসামিকে যে কোন সময় ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে। ফাঁসিরয়ে যাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে তারা হলেন, কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার রাজনগর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে সাফায়েত হোসেন, কুর্শা গ্রামের উম্মত ম-লের ছেলে আনোয়ার হোসেন ও সিরাজ ওরফে আবুল হোসেনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম ওরফে আকবর। ইতোমধ্যে প্রেসিডেন্টের কাছে তাদের প্রাণ ভিক্ষার আবেদন নাকচ হয়েছে বলে কারাগার সূত্রে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার রাতের মধ্যে তাদের ফাঁসির রায় কার্যকর করার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে কারাগার কর্তৃপক্ষ। আদালত সূত্র জানায়, ১৯৯৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি বিকেলে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের কালিদাসপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সন্ত্রাসবিরোধী এক জনসভায় চরমপন্থি সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে নির্মমভাবে নিহত হন মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক জাসদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কাজী আরেফ আহমেদ, কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি লোকমান হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এড. ইয়াকুব আলী, স্থানীয় জাসদ নেতা ইসরাইল হোসেন ও সমশের ম-ল। হত্যাকা-ের পাঁচ বছর পর ২০০৪ সালের ৩০ আগস্ট কুষ্টিয়া জেলা জজ আদালত এ হত্যা মামলায় ১০ জনের ফাঁসি ও ১২ জনের যাবজ্জীবন কারাদ-ের রায় দেন। আসামিরা হাইকোর্টে আপিল করলে ২০০৮ সালের ৩১ আগস্ট আদালত ফাঁসির এক আসামি ও যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ১০ জনের সাজা মওকুফ করে রায় দেন। পরে সরকার পক্ষ (বাদী) সুপ্রিম কোর্টে আপিল করলে আদালত ২০১১ সালের ৭ আগস্ট হাইকোর্টের দেয়া রায় বহাল রেখে রায় দেন। পরে ফাঁসির দ-াদেশপ্রাপ্ত আসামিরা সুপ্রিমকোর্টে রিভিউ করলে তাও ২০১৪ সালের ১৯ নভেম্বর খারিজ করে দেয়া হয়।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*